বৃহস্পতিবার

ঢাকা, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

সর্বশেষ


বিশেষ প্রতিবেদন

বিসিএস নির্বাচন: কেমন সভাপতি চান বরিশালের সদস্যরা

প্রকাশ: ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, সকাল ৮:৪৩

উজ্জ্বল এ গমেজ

Card image

ছবি: টেকওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ

তিনি হবেন স্মার্ট, ডায়নামিক একজন নেতা। আমাদের বরিশালে যেসব সদস্যরা আছেন, তাদের ভাল-মন্দ দেখাশোনার জন্য যে শাখা কমিটি রয়েছে, এই কমিটির সদস্যরা নিয়মিত তাদের দায়িত্ব ঠিকঠাক মতো পালন করছেন কি না, যদি না করে থাকেন তিনি যেনো বিচক্ষণতার সাথে স্মার্টলি এসব বিষয়গুলো মোকাবেলা করতে পারেন।

যেকোনো বাণিজ্যিক সংগঠনের কার্যক্রম সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে পরিচালনার জন্য যিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকেন তিনি হলেন সংগঠনের সভাপতি। তিনি তার নৈতিক আদর্শ ও নেতৃত্বের সৌন্দর্যের গুণে কার্যনির্বাহী পরিষদকে সুন্দরভাবে পরিচালনার মাধ্যমে সংগঠনের উন্নতি করেন। ফলে সংগঠনের সদস্যরা যেসব সুযোগ-সুবিধা ও অধিকার পাওয়ার কথা সেগুলো তারা সুষ্ঠুভাবে পেয়ে থাকেন।

তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের জাতীয় সংগঠন বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস) এর ২০২৪-২৬ মেয়াদের কার্যনির্বাহী কমিটি এবং শাখা কমিটিসমূহের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ৯ মার্চ। এবারের নির্বাচনে সংগঠনের গতিশীলতার জন্য কেমন সভাপতি প্রত্যাশা করেন, বিষয়টি জানতে টেকওয়ার্ল্ড বাংলাদেশের পক্ষ থেকে কথা হয় বিসিএস-এর বরিশাল শাখার দুইজন সক্রিয় সদস্যের সঙ্গে।

এওয়ান কম্পিউটার সিস্টেমের স্বত্বাধিকারী নাজনীন আক্তার বলেন, আমার দৃষ্টিতে বিসিএস সংগঠনের সভাপতি হবেন একজন মিশুক, সদালাপী, বিনয়ী, সদস্যবান্ধব ও প্রকৃত অভিভাবক। যার কাছে সদস্যরা মন খুলে তাদের কম্পিউটার যন্ত্রাংশ ব্যবসার সব ধরনের সুবিধা-অসুবিধা, সমস্যা ও অভিযোগ ও সুখ-দুঃখের কথা সহজে বলতে পারেন। সেসব কথা শুনে তিনিও যেনো গুরুত্ব অনুসারে দ্রুত সমস্যার সমাধানে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। সদস্যদের বিপদের সময় সব সময় পাশে থাকেন।

বরিশাল সিটি মার্কেটের এওয়ান কম্পিউটার সিস্টেমের এই স্বত্বাধিকারী বলেন, তিনি হবেন স্মার্ট, ডায়নামিক একজন নেতা। আমাদের বরিশালে যেসব সদস্যরা আছেন, তাদের ভাল-মন্দ দেখাশোনার জন্য যে শাখা কমিটি রয়েছে, এই কমিটির সদস্যরা নিয়মিত তাদের দায়িত্ব ঠিকঠাক মতো পালন করছেন কি না, যদি না করে থাকেন তিনি যেনো বিচক্ষণতার সাথে স্মার্টলি এসব বিষয়গুলো মোকাবেলা করতে পারেন। সংগঠনের সক্রিয় সদস্য হিসেবে যেসব সুযোগ-সুবিধা ও অধিকার পাওয়ার কথা, সেগুলো যেনো প্রত্যেকজন সদস্য সঠিকভাবে পেতে পারেন সেটা নিশ্চিত করতে পারেন তিনি।

সংগঠন পরিচালনার জন্য একজন নেতার যোগ্যতা ও দক্ষতা প্রসঙ্গে নাজনীন আক্তার আরও বলেন, সাংগঠনিকভাবে সারা বছরে যেসব কার্যক্রম রয়েছে, যেমন, বার্ষিক বনভোজন, বরিশালের মেলা, সময়োপযোগী বিভিন্ন সভা-সেমিনার, কর্মশালা, বিসিএস সফট এক্সপো বা মেলা এগুলো যেনো নিয়মিত আয়োজিত হয় বিষয়গুলো তিনি তার সুদক্ষ নেতৃত্বের গুণে কার্যনির্বাহী পরিষদের দ্বারা বিচক্ষণতা ও দূরদর্শীতার সাথে সম্পন্ন করতে পারেন। এমন দক্ষ নেতাকে সভাপতি হিসেবে চাই।  

এ প্রসঙ্গে বিসিএস-এর সদস্য ও বরিশাল সিটি মার্কেটের স্পার্ক কম্পিউটার অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ার্সের স্বত্বাধিকারী মোহাম্মাদ আব্দুল্লাহ আল ফরিদ  বলেন, দুই যুগের বেশি সময় ধরে প্রাণের সংগঠনের সাথে আছি। সংগঠনের গতিশীলতার জন্য আমি একজন আধুনিক ও স্মার্ট এবং যোগ্য সভাপতি চাই। তিনি হবেন মনেপ্রাণে কম্পিউটার যন্ত্রাংশ ব্যবসায়ীদের কাছের মানুষ। তিনি যেনো সংগঠনকে হৃদয়ে ধারণ করেন। তাহলে সংগঠনের সব কাজ নিজের মনের করে করবেন।

স্পার্ক কম্পিউটার অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ার্সের এই স্বত্বাধিকারী বলেন, একজন সচেতন সদস্য হিসেবে আমি চাই প্রাণের সংগঠনের জন্য এমন একজন সভাপতি তিনি যেনো কথা এবং কাজে মিল রাখেন। যেসব নেতা নির্বাচনের আগে সদস্যদের জন্য নানা প্রতিশ্রুতির কথা বলে নির্বাচিত হন। পরে সেগুলো বাস্তয়ন করেন না, তখন ওই নেতার কথা আর কাজে মিল থাকে না। এমন নেতার উপর কেউ আস্থা রাখেন না। আমার মতে একজন প্রকৃত নেতার কথা ও কাজে মিল থাকে।

তিনি বলেন, সংগঠনের কল্যাণ তহবিলের টাকার পরিমাণটা একটু কম। মাত্র ৫০ হাজার টাকা। আমাদের প্রাণের দাবি হলো এর পরিমাণটা যাতে নতুন সভাপতি বাড়ান। কেননা যেকোনো বড় অসুস্থতা যেমন, হার্ট বা কিডনির অপারেশনের সময় প্রত্যেকজন সদস্য যেনো একটা বড় অংকের টাকা পেতে পারেন। এটা নিশ্চিত করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ তিনি যেনো নিতে পারেন, এমন যোগ্য ব্যক্তিকে সভাপতি হিসেবে চাই।

বিসিএস সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) এই ভোটার তালিকা প্রকাশিত হয়। একই সঙ্গে বিসিএস এর ২০২৪-২৬ মেয়াদের কার্যনির্বাহী কমিটি এবং শাখা কমিটিসমূহের নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য মনোনয়নপত্র আহ্বান হবান করা হয়েছে। ৭ ফেব্রুয়ারি বেলা ২.৩০ এর মধ্যে মনোনয়নপত্র বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জমা দিতে হবে।

নির্বাচন বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ওরা-টেক কনসালটিং লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেখ কবীর আহমেদ। সদস্য হিসেবে সাইবার কমিউনিকেশনের প্রধান কার্যনির্বাহী মো. নাজমুল আলম ভুঁইয়া (জুয়েল) এবং কম্পিউটার আর্কাইভস-এর স্বত্বাধিকারী মো. আমির হোসেন দায়িত্ব পালন করছেন। নির্বাচনী আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যানের দায়িত্বে রয়েছেন বিসিএস-এর প্রাক্তন সভাপতি এসএম ইকবাল। মেট্রোনেট বাংলাদেশ লিমিটেডের প্রধান কার্যনির্বাহী ও এফবিসিসিআই-এর প্রাক্তন পরিচালক সৈয়দ আলমাস কবির এবং অ্যাডভান্সড কম্পিউটার টেকনোলজি’র (এসিটি) স্বত্বাধিকারী প্রকৌশলী চৌধুরী মো. আসলাম আপীল বোর্ডের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

২০২৪-২৬ মেয়াদের কার্যনির্বাহী কমিটি ও ১১টি শাখা কমিটির নির্বাচনের জন্য নির্বাচন বোর্ড চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করেছে। এবারের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন ২ হাজার ১৫০ জন ভোটার।

সংবাদটি পঠিত হয়েছে: ১৭৮ বার

SPACE FOR AD (760 X 180)

বিশেষ প্রতিবেদন সম্পর্কিত নিউজ