স্যামসাং গ্যালাক্সি ই-কমার্স শপ

প্রকাশঃ ০৭:৫৫ মিঃ, এপ্রিল ৮, ২০২১
Card image cap

স্যামসাং বাংলাদেশের হেড অব মোবাইল মো. মূয়ীদুর রহমান জানালেন, মানুষের জীবনশৈলীকে আরও সহজ করতে স্যামসাং বাংলাদেশ সবসময় অভিনব পণ্য ও সেবা নিয়ে কাজ করছে। তাই ক্রেতার পণ্য কেনার অভিজ্ঞতায় নতুন মাত্রা যোগ করতে (www.galaxyshopbd.com) অনলাইন পোর্টালটি আরেকবার সচল করতে পেরে আমরা আনন্দিত।

সাব্বিন হাসান:

গ্যালাক্সি সিরিজের স্মার্টফোন কেনার সুবিধার্থে স্যামসাং বাংলাদেশ চালু করল (www.galaxyshopbd.com) সাইটের সেবা। গত বছর লকডাউনে অনলাইন পোর্টালটি প্রথম চালু করা হয়। চলতি লকডাউনে স্মার্টফোন কেনার সুবিধার্থে ৭ এপ্রিল আবারও পোর্টালটি চালু হয়।

স্যামসাং বাংলাদেশের হেড অব মোবাইল মো. মূয়ীদুর রহমান এ সেবা প্রসঙ্গে জানালেন, লকডাউনের কারণে মানুষের পণ্য কেনাকাটায় যেন কোনো বাঁধা সৃষ্টি না হয় তা নিশ্চিতেই এ উদ্যোগ। সারা দেশে করোনার প্রকোপ বাড়ছে। সবাই নিজ নিজ ঘরে নিরাপদে থাকুক। স্যামসাং পণ্য কিনতে ব্র্যান্ড শপে যেন যেতে না হয় সেজন্যই এমন সেবা।

মানুষের জীবনশৈলীকে আরও সহজ করতে স্যামসাং বাংলাদেশ সবসময় অভিনব পণ্য ও সেবা নিয়ে কাজ করছে। তাই ক্রেতার পণ্য কেনার অভিজ্ঞতায় নতুন মাত্রা যোগ করতে অনলাইন পোর্টালটি আরেকবার সচল করতে পেরে আমরা আনন্দিত। সবাইকে অনুরোধ করব যেন তারা ঘরে থাকে, নিরাপদে থাকে আর সব ধরনের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলেন।

দেশে যেসব গ্যালাক্সি ডিভাইস পাওয়া যায় তার সবই থাকছে এ সাইটে। ডিভাইসের ওপর অফার (যদি থাকে) গ্রাহকেরা সাইটে তা দেখতে পারবেন। তা ছাড়া পোর্টালে গুরুত্বপূর্ণ সব তথ্য থাকায় তা গ্রাহকদের পছন্দের ডিভাইস কিনতে সহায়ক হবে।

যথাসাধ্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রেতাদের বিনা মূল্যে ডেলিভারি নিশ্চিত করবে স্যামসাং বাংলাদেশ। ক্রেতারা বিকাশ, ক্যাশ অন ডেলিভারি বা বিভিন্ন ব্যাংক কার্ডের মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন। তা ছাড়া নির্দিষ্ট পণ্যের ওপর থাকছে সমান মাসিক কিস্তি (ইএমআই) সুবিধা।

দ্রুত ডেলিভারি আর সুবিধা নিশ্চিতে ক্রেতাদের অর্ডার পৌঁছে দেবে পছন্দসই রিটেইলার। পণ্য কেনার সময় কোনো অসুবিধা হলে ক্রেতারা টোল ফ্রি স্যামসাং কল সেন্টারে (০৮০০০ ৩০০ ৩০০) সরাসরি যোগাযোগ করতে পারবেন। সব ধরণের পণ্য ও সেবা তথ্যের জন্য ২৪/৭ কল সেন্টার চালু থাকবে। চাইলে ক্রেতারা ই-মেইলেও (feedback.bd@samsung.com )কল সেন্টারে যোগাযোগ করতে পারবেন। 

সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ৪৩২ বার