গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রীর দপ্তর।

প্রকাশঃ ০২:১০ মিঃ, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৯
Card image cap

শিশু কিশোরদের আগামী দিনের ডিজিটাল বিপ্লবের ----- মোস্তাফা জব্বার  

টেকওয়ার্ল্ড প্রতিনিধি:

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী জনাব মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, আগামী দিনগুলো ডিজিটাল শিল্প বিপ্লবের দিন। শিশু কিশোরদের আগামী দিনের ডিজিটাল বিপ্লবের উপযোগী সৈনিক হিসেবে গড়ে তুলতে শিক্ষক অভিভাবসহ শিশু কিশোর সংগঠনসমূহকে আরও সচেষ্ট হতে হবে। তিনি বলেন, ডিজিটাল বিপ্লবের শক্তিশালী হাতিয়ার হচ্ছে মেধা। বাংলাদেশের ছেলে - মেয়েরা খুবই মেধাবী। তারা একমাসের প্রশিক্ষণ নিয়ে এখন রোবট বানাতে পারে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
মন্ত্রী আজ শুক্রবার ঢাকায় বাংলাদেশ শিশু একাডেমিতে খেলাঘর জাতীয় সম্মেলন ২০১৯ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। ইমেরিটাস অধ্যাপক প্রফেসর ড. আনিসুজ্জামান সম্মেলনের উদ্বোধন করেন।
খেলাঘর জাতীয় কমিটির সভাপতি মন্ডলির চেয়ারম্যান অধ্যাপক পান্না কায়সার এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. আখতারুজ্জামান এবং বরগুনার ৭ বছরের শিশু মনিরা বক্তৃতা করেন।
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী প্রাচীন প্রতিষ্ঠান খেলাঘরের স্বাধীনতার পুর্বে অসাম্প্রদায়িকতা বিরোধী ভূমিকাসহ নানা ক্ষেত্রে খেলাঘরের ভূমিকা তুলে ধরে বলেন, খেলাঘরকে আবারও জাগ্রত হতে হবে। বঙ্গবন্ধু যে জাতিসত্ত¦ার জন্ম দিয়েছেন তা টিকিয়ে রাখতে আগামী দিনগুলোতেও খেলাঘরকে কাজ করতে হবে।
মন্ত্রী ডিজিটাল শিল্প বিপ্লবের হাতিয়ার হিসেবে দেশের নতুন প্রজন্মকে অত্যন্ত মেধাবি উল্লেখ করে বলেন, দেশের শিশু কিশোরদের ডিজিটাল শিল্প বিপ্লবের উপযোগী হিসেবে গড়ে তুলতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার প্রচলিত শিক্ষাকে ডিজিটাল রূপান্তর শুরু করেছে। ২০১৮ সাল থেকে আমরা শিশু- কিশোরদের জন্য কম্পিউটার প্রোগ্র্রামিং শুরু করেছি। আমাদের সন্তানরা এখন এক মাস প্রশিক্ষণ নিয়ে রোবট বানাতে পারে। ডিজিটাল ডিভাইসের মাধ্যমে দেশে অনেক প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষা দেয়া হচ্ছে।
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী ছেলে মেয়েদের জন্য ডিজিটাল শিক্ষার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, ডিজিটাল শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হলে ডিজিটাল শিক্ষা অপরিহার্য। অনেক অভিভাবক মনে করেন, ছেলে মেয়েদের কম্পিউটার স্পর্শ করতে দেওয়াই উচিৎ না। এই ভ্রান্ত ধারণার বৃত্ত থেকে আমাদেরকে বেরিেেয় আসতে হবে। কারণ সরকার ডিজিটাল নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর। তিনি ইন্টারনেট নিরাপদ রাখতে ইতোমধ্যে সরকার গৃহীত উদ্যোগ তুলে ধরে বলেন, আমরা এ পর্যন্ত ২৪ হাজার পর্নো সাইট এবং ২ হাজার জুয়ার সাইট বন্ধ করেছি। নারী ও শিশুদের জন্য ক্ষতিকর সাইট সমূহ প্রতিনিয়ত বন্ধ করা হচ্ছে।
জনাব মোস্তাফা জব্বার বাংলাদেশের জাতীয় প্রবৃদ্ধি, শিক্ষার হার, নারী উন্নয়নসহ উন্নয়নের প্রতিটি সূচকে গত দশবছরের সফলতার চিত্র তুলে ধরে বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ আমাদের এগিয়ে যাওয়ার হাতিয়ার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশের ধারণা বিশেষ এগিয়ে যাওয়ার দৃষ্টান্ত হিসেবে উঠে আসছে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্য দিয়ে যে অশুভ শক্তি বাংলাদেশকে ধ্বংসের চেষ্টা করেছিল সেই অপশক্তির এখনো শেষ হয়ে যায়নি বলে উল্লেখ করেন তিনি।
পরে খেলাঘরের একটি শোভাযাত্রা বের হয়। মন্ত্রী শোভাযাত্রার নেতৃত্ব দেন।

সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ১০৫৬ বার