“আমার ইন্টারনেট আমার আয়” কর্মসূচির ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষনার্থীদের হাতে সনদ প্রদান করলো জাতীয় মহিলা সংস্থা

প্রকাশঃ ১১:২৫ মিঃ, জুন ২৬, ২০১৯
Card image cap

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়াধীন জাতীয় মহিলা সংস্থা কর্তৃক পরিচালিত “আমার ইন্টারনেট আমার আয়”কর্মসূচী হতে গত দুই (২) বছরে ৬৪  টি জেলায় ৬ মাস মেয়াদী মোট ২,৩০৪ জন ফ্রিল্যান্স আউটসোর্সিং এর উপর প্রশিক্ষণ সম্পন্ন কারীদের মধ্যে সনদপত্র প্রদান করলো জাতীয় মহিলা সংস্থা।

টেকওয়ার্ল্ড প্রতিনিধি:

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়াধীন জাতীয় মহিলা সংস্থা কর্তৃক পরিচালিত “আমার ইন্টারনেট আমার আয়”কর্মসূচী হতে গত দুই (২) বছরে ৬৪  টি জেলায় ৬ মাস মেয়াদী মোট ২,৩০৪ জন ফ্রিল্যান্স আউটসোর্সিং এর উপর প্রশিক্ষণ সম্পন্ন কারীদের মধ্যে সনদপত্র প্রদান করলো জাতীয় মহিলা সংস্থা। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, জনাব কামরুন নাহার।

জাতীয় মহিলা সংস্থা অডিটরিয়ামে প্রশিক্ষণার্থীদের হাতে সনদ তুলে দেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাননীয় সচিব জনাব কামরুন নাহার।অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক মমতাজ বেগম এ্যাডভোকেট, চেয়ারম্যান, জাতীয় মহিলা সংস্থা ও স্বাগত বক্তব্য রাখেন জনাব কাজল ইসলাম, জাতীয় মহিলা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক। এছাড়াও আমার ইন্টারনেট আমার আয় কর্মসূচির সফলতা একটি ভিডিও প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে উপস্থাপন করেন এই কর্মসূচির সহযোগী প্রতিষ্ঠান কমজগৎ টেকনোলজিসের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব মোহাম্মদ আব্দুল ওয়াহেদ তমাল ।

প্রসঙ্গত, ২০১৭-১৮ অর্থবছর ২ (দুই) বছর মেয়াদে গত ২৫ জুন, ২০১৭ তারিখ অর্থমন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের মাধ্যমে শুরু হয় নারীদের ইন্টারনেট ব্যবহারের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্স আউটসোর্সিংএর উপর প্রশিক্ষণ প্রদান  এবং তাদেরকে উৎসাহ প্রদান করা হয় যেন তারা ঘরে বসে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করতে পারে।

“আমার ইন্টারনেট আমার আয়” কর্মসূচীটি সংস্থার আওতায় জেলা ভিত্তিক মহিলা কম্পিউটার প্রশিক্ষণ (৬৪ জেলা) প্রকল্পের কম্পিউটার বিষয়ে প্রশিক্ষিত মোট ২,৩০৪ জন নারীকে তিনটি ধাপে (২২ দিন অনলাইন ক্লাস, ৬ দিন সরাসরি ক্লাস এবং চার মাস অনলাইন সাপোর্ট) ৬ মাস মেয়াদী ফ্রিল্যান্স আউটসোর্সিং এর উপর প্রশিক্ষণ প্রদান করে । প্রশিক্ষণ বাস্তবায়নে জাতীয় মহিলা সংস্থাকে সহায়তা করে কমজগৎ টেকনোলজিস। নিঃসন্দেহে বাংলাদেশের নারীদের জন্য “আমার ইন্টারনেট আমার আয়”কর্মসূচীটি এক নতুন দিগন্তের উন্মোচন করেছে। দেশীয় ফ্রিল্যান্সিং ইন্ডাস্ট্রিতে যত নারীদের অংশগ্রহণ বাড়বে, তত দেশের অর্থনৈতিক উন্নতি সাধিত হবে। পাশাপাশি নারীরাও হয়ে উঠবেন স্বাবলম্বী।




সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ২৩৬ বার

সম্পর্কিত পোস্ট