তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রীর সাথে ভারতের হাই-কমিশনার রীভা গাঙ্গুলির বৈঠক

প্রকাশঃ ১১:৩৭ মিঃ, জুন ২০, ২০১৯
Card image cap

বাংলাদেশের হাই-টেক পার্কে বিনিয়োগ ও তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়ন ও বিকাশে ভারত-বাংলাদেশ  যৌথভাবে কাজ করবে।  আজ আগারগাঁওস্থ আইসিটি টাওয়ারের বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ সভাকক্ষে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই-কমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ (Riva Ganguly Das) তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সাথে বৈঠককালে এ কথা বলেন।

টেকওয়ার্ল্ড প্রতিনিধি:

বাংলাদেশের হাই-টেক পার্কে বিনিয়োগ ও তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়ন ও বিকাশে ভারত-বাংলাদেশ  যৌথভাবে কাজ করবে।  আজ আগারগাঁওস্থ আইসিটি টাওয়ারের বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ সভাকক্ষে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই-কমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ (Riva Ganguly Das) তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সাথে বৈঠককালে এ কথা বলেন। 

বৈঠকে ভারতীয় প্রতিনিধিদলের অন্যান্য সদস্যগণের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের ডিপুটি হাই-কমিশনার বিশ্বজিৎ দে, আইটি বিষয়ক দ্বিতীয় সচিব নবীন সর, ভিসা বিষয়ক দ্বিতীয় সচিব বিশাল জ্যোতি দাশ ও ভয়েন্টস সল্যুউশনস প্রাইভেট লি. এর ভাইস-প্রেসিডেন্ট সওটি আগারওয়াল। বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলে ছিলেন বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম ও তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ।

এ সময় তারা দুই দেশের পারস্পারিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে বিশেষ করে মানব সম্পদ উন্নয়ন, আইটি শিল্পের বিকাশ ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যেভারত সরকারের অর্থায়নে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ কর্তৃকবাস্তবায়নাধীন জেলা পর্যায়ে আইটি/ হাই-টেক পার্ক স্থাপন (১২টি জেলায়) প্রকল্প, তথ্যপ্রযুক্তি খাতের চলমান অগ্রগতি, আইসিটি খাতে বিনিয়োগ সম্ভাবনা, প্রযুক্তি হস্তান্তর, স্টার্টআপ তৈরির সংস্কৃতি গড়ে তুলতে সহযোগিতা প্রদানসহ বিভিন্ন বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। 

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী গ্রামকে শহরে রুপান্তরিত করা, তারুণ্যের শক্তিকে কাজে লাগানো ও প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে দুর্নীতিমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা করারলক্ষ্যে বর্তমান সরকার কাজ করছে। তিনি তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত ডিজিটাল সেবা পৌছে দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত বিভিন্ন কর্মসূচি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে বাস্তবায়নাধীন ২৮টি হাই-টেক পার্ক, ইনফো সরকার ৩য় পর্যায় প্রকল্প, ডাটা সেন্টার, স্টার্টআপ প্রকল্পসহ আইসিটি সেক্টরের চলমান কার্যক্রম হাই-কমিশনারকে অবহিত করেন। তিনি ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে আইসিটি খাতে ভারত সরকারের সহযোগিতার কামনা করেন। 

হাই-কমিশনার বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিশন অনুযায়ী অল্প সময়ে বাংলাদেশের আইসিটি খাতসহ সকল খাতের অগ্রগতি দৃশ্যমান। আগামী দিনগুলোতে আরো এগিয়ে যাবে। পারস্পারিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিশেষ করে প্রতিবেশী দুই দেশের মধ্যে আইসিটি খাতের উন্নয়নে সহযোগিতা ভবিষ্যতে আরও বৃদ্ধি পাবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে ভারত সরকার বাংলাদেশের সাথে কাজ করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।


সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ৪১১ বার