চালু হলো বেসিস নির্মিত প্রথম মোবাইল অ্যাপস “ বেসিস সফটএক্সপো”

প্রকাশঃ ০২:৪৯ মিঃ, মার্চ ১৮, ২০১৯
Card image cap

বেসিস এই প্রথম নিজেদের জন্য নিজেরা কোন অ্যাপস ডেভেলাপ করলো এবং আমি আনন্দিত যে এটা এই মেলার উপলক্ষেই করা হয়েছে যা আগামিতেও ব্যবহার করা যাবে। এর মূল উদ্দেশ্য হলো দর্শনার্থীদের মেলার আয়োজন সম্পর্কে আগে থেকেই একটা ধারনা দিয়ে সাহায্য করা আরেকটি হলো তাদের পছন্দ এবং চাহিদা সর্ম্পকে তথ্যসংগ্রহ করা।

টেকওয়ার্ল্ড প্রতিনিধি:

 প্রথম বারের মত বেসিসের নিজ উদ্যোগে তৈরী হলো মোবাইল অ্যাপস “বেসিস সফটএক্সপো”। বেসিস সফটএক্সপো ২০১৯ উপলক্ষে তৈরী এই মোবাইল অ্যাপসটি ডাউনলোড করা যাবে গুগল প্লে স্টোর হতে। মেলার আয়োজনসম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য দিয়ে সাজানো হয়েছে এই অ্যাপসটি। এটি ডাউলোডের  মাধ্যমে ভিজিটে আগ্রহীরা মেলায় আসার আগেই মেলার যাবতীয় আয়োজন সম্পর্কে জানতে পারবে। এতে তাদের সময় সাশ্রয় হবে বলে মনে করেন আয়োজকরা ।  তবে তথ্য জানতে রেজিস্ট্রেশন করে লগইন করে নিতে হবে। লগইন স্ক্রিন এ দর্শনার্থী এবং পন্যসেবা প্রদর্শনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য রয়েছে আলাদা আলাদা রেজিস্ট্রেশন ব্যবস্থা। দর্শনার্থী লগইন করলে দেখতে পাবেন মেলায় অংশগ্রহনকারী প্রতিষ্ঠান গুলোর নামের তালিকা সহ প্রদর্শিত পন্য সেবাসমূহ সম্পর্কিত তথ্যাবলী, একই সাথে দেখতে পাবেন মেলায় আয়োজিত সকল সেমিনার এবং বক্তাদের নামের তালিকা । এর মধ্য হতে যে যে স্টলে তিনি যেতে চান বা যে যে সেমিনারে তিনি অংশগ্রহন করতে চান তার পরিকল্পনা করে রাখতে পারন অ্যাপস এর মাই প্ল্যান” নামক ফিচারটির ব্যাবহার করে। এটি আগ্রহী ভিজিটরকে তার নির্বাচিত সেমিনার বা অনুষ্ঠান শুরুর আগে নোটিফাই করবে ।   এছাড়া ভিজিটর যে সমস্ত স্টল বা বুথ ভিজিট করবেন সেই স্টলে ভিজিটররা অ্যাপস এর কিউআর কোড  স্ক্যান  করে সে তার তথ্যগুলো ‍দিতে পারবে।  এতে করে পন্যসেবা প্রদর্শনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে পৌছে যাবে দর্শনার্থীর তথ্যাদি। দিনের শেষে আসলে কে কে তাদের বুথ ভিজিট করেছিল সেই তথ্যটাও রয়ে যাবে প্রদর্শনকারী  প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে । এছাড়াও দর্শনার্থীদের তৈরী এই মাই প্ল্যান  ফিচার হতে   আয়োজকরা সহজেই জানতে পারবেন কোন পণ্যের প্রতি ক্রেতার আগ্রহ বেশী। যা আয়োজক এবং অংশগ্রহনকারীদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ কারণ এ থেকে একদিকে যেমন সম্ভাব্য ক্রেতা তৈরী হবার সম্ভাবনা আছে অন্যদিকে ক্রেতাদের আগ্রহের জায়গাটা জানা যাচ্ছে। যার উপর ভিত্তি করে প্রতিষ্ঠানগুলো পরবর্তীতে তাদের পণ্যসেবার মানের উন্নয়ন ও পরিমার্জন করতে পারবে। এছাড়াও পরবর্তীতে ভবিষৎ এ ব্যবহারকারী এই অ্যাপসের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের তথ্য সুবিধা গুলো ভোগ করতে পারবে।

দর্শনার্থী প্রদত্ত এডাটাটা থেকে আরও জানা যাবে আসলে কত ধরনের  ভিজিটর আসে এবং ছাত্রছাত্রীদের কি ধরনের  পন্য সেবার প্রতি আগ্রহ এবং কোন ধরনের কর্পোরেট কোন ধরনের  টেকনোলজির প্রতি আগ্রহ দেখাচ্ছে সে বিষয়েও একটা সাধারন ধারনা দিতে সাহায্য করবে এই অ্যাপস।

এ প্রসঙ্গে মেলার আহ্ববায়ক ফারহানা এ রহমান বলেন-

বেসিস এই প্রথম নিজেদের জন্য নিজেরা কোন অ্যাপস ডেভেলাপ করলো এবং আমি আনন্দিত যে এটা এই মেলার উপলক্ষেই করা হয়েছে যা আগামিতেও ব্যবহার করা যাবে। এর মূল উদ্দেশ্য হলো দর্শনার্থীদের মেলার আয়োজন সম্পর্কে আগে থেকেই একটা ধারনা দিয়ে সাহায্য করা আরেকটি হলো তাদের পছন্দ এবং চাহিদা সর্ম্পকে তথ্যসংগ্রহ করা। 

যা আমাদের ক্রেতা বিক্রেতার সম্পর্ক উন্নয়নে সহায়তা করবে। এটি  মেলার সকল আয়োজন  সম্পর্কে জানতে এবং মেলাপরবর্তী সময়েও সফটওয়্যার সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান খুজতে, যোগাযোগে করতে দর্শনার্থী ক্রেতাদের যেমন সাহায্য করবে অপরদিকে যারা উদ্যোক্তা তাদের জন্যও অ্যাপসটি ক্রেতা সাধারণের পছন্দ অপছন্দ সহ বাজার চাহিদা সম্পর্কে একটি ধারণা পেতে সাহায্য করবে। কাজটির সাথে সম্পৃক্ত হতে পেরে ভালো লাগছে। 

আরেকটা আমাদের উদ্দেশ্য ছিল যেহেতু এটা একটা ডিজিটাল প্রযুক্তি মেলা  তাই  এটাকে যতটা সম্ভব প্রযুক্তির ব্যাবহার করার চেষ্ঠা করা হয়েছে।  আমরা চাই যে সবাই এই সেবাটি ডাউনলোড করুক যাতে করে  মেলায় আসার আগেই মেলা সম্পর্কে   একটা সম্মুখ সে নিতে পারে । এছাড়াও আমাদেরকে এধরনের  প্রযুক্তি পন্য ব্যবহারে অভ্যস্থ হতে হবে কারন এটা একটা অভ্যাসেরও ব্যাপার। যেটা বিদেশে সচরাচর মানষরা করে থাকে। আমাদের দেশে এই জিনিস নতুন শুরু হয়েছে।এবং আমরা চাই যে এতে অভ্যস্ত হোক মানুষ। 

গুগল প্লেস্টোরে এই অ্যাপসটি আপলোড করা হয়েছে গত ১৪ই মার্চ । অ্যাপস ডিজাইন এবং গ্রাফিক্স প্রাধান্য দেয়া হয়েছে বেসিস সফটএক্সপোর থিম রং বেগুনিকে। মেলার আয়োজনে এটি একটি আধুনিক সংযোজন বলে মনে করেন আয়োজকরা । ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন https://play.google.com/store/apps/details?id=com.ticonsys.basisexpo


 

সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ১৭১ বার