শুরু হচ্ছে বেসিস সফটএক্সপো ২০১৯: নেতৃত্বে ফারহানা এ রহমান

প্রকাশঃ ০৬:৩৯ মিঃ, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৯
Card image cap

দেশীয় সফটওয়্যার প্রদর্শনীর তথা তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সক্ষমতা তুলে  ধরার পাশাপাশি নতুনভাবে সংযোজিত হয়েছে ইন্ডাস্ট্রি ৪.০ যেখানে দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের নতুন নতুন প্রযুক্তি পণ্য সেবা প্রদর্শণ করবে। এছাড়াও নতুনভাবে সংযোজিত হয়েছে ফিনটেক জোন ও এক্সপেরিয়েন্স জোন।

টেকওয়ার্ল্ড প্রতিনিধি:

আগামী ১৯ই মার্চ শুরু হতে যাচ্ছে  বেসিসের নিয়মিত আয়োজন বেসিস সফট এক্সপো ২০১৯। দেশীয় সফটওয়্যার শিল্পের সবচেয়ে বড় এই আসরের আয়োজনে এবারই প্রথম  নারী আহবায়ক হিসেবে নিযুক্ত হয়েছেন বেসিসের জ্যেষ্ঠ সহ সভাপতি  ফারহানা এ রহমান, তাই আয়োজনের ভিন্নতা প্রত্যাশিত। ১৫তম এই আসরের  আয়োজনের ভিন্নতা এবং এক্সপোর গুরুত্বপূর্ন  বিষয়গুলো গনমাধ্যমকে অবিহিত করতে আজ  বেসিস এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

টেকনোলজি ফর প্রসপারিটি স্লোগান নিয়ে  আগামী ১৯-২১ মার্চ তিন দিনব্যাপী আর্ন্তজাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরা ( আইসিসিবি )-তে শুরু হতে যাচ্ছে ৩ কোটির ও বেশী টাকা বাজেটের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতের জনপ্রিয় প্রদর্শনী বেসিস সফটএক্সপো ২০১৯। দেশে এইবারই প্রথম এ ধরনের কোন নারী এমন আয়োজনের নেতৃত্ব দিচ্ছে। বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস ( বেসিস ) আয়োজিত তথ্যপ্রযুক্তির বৃহত্তম এই প্রদর্শনীতে এবার প্রায় আড়াইশো দেশি-বিদেশি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের জন্য পণ্য ও সেবা প্রদর্শনের সুযোগ থাকছে বলে জানান আয়োজকরা।
প্রদর্শনী এলাকাকে দশটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে। দেশীয় সফটওয়্যার প্রদর্শনীর তথা তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সক্ষমতা তুলে  ধরার পাশাপাশি নতুন সংযোজিত হয়েছে ইন্ডাস্ট্রি ৪.০ যেখানে দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের নতুন নতুন প্রযুক্তি পণ্য সেবা প্রদর্শণ করবে এবং বরাবরের মতো রয়েছে সফটওয়্যার সেবা প্রদর্শনী জোন, উদ্ভাবনী মোবাইল সেবা জোন, ডিজিটাল কমার্স জোন, আইটিইএস ও বিপিও জোন। থাকবে ৩০টিরও বেশি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সেমিনার, যেখানে বক্তব্য রাখবেন শতাধিক দেশি-বিদেশি ব্যবসায়ীদের জন্যে থাকছে বি-টু-বি ম্যাচমেকিং সেশন, যার মাধ্যমে ব্যবসায়ীরা  নিজেদের ব্যবসার প্রসার খুব সহজেই করতে পারবেন। 
আয়োজন করা হবে কর্পোরেট আওয়ার, যেখানে অংশ নিবেন পাঁচ শতাধিক কর্পোরেট হাই অফিশিয়াল। শিক্ষার্থীদের জন্য থাকবে আইসিটি ক্যারিয়ার ক্যাম্প আর বরাবরের মতো গেমিং ফেস্ট। ১০টি বিশেষ জোন নিয়ে আয়োজিত এই মেলায় নতুন সংযোজন ইন্ডাস্ট্রি ফোর পয়েন্ট ও জোন, এক্সপেরিয়েন্স জোন, এবং ভ্যাট জোন। ২৫০ টিরও বেশি দেশি-বিদেশি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের  স্টল দিয়ে সাজানো এই মেলায় থাকবে ৩০টিরও বেশি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সেমিনার। কর্পোরেট আওয়ার, অংশ নেবেন পাঁচ শতাধিক কর্পোরেট হাই অফিসিয়াল সহ ১০০ জনেরও বেশি দেশি-বিদেশি তথ্য ও প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞের অংশগ্রহণ করবেন বলে জানান কতৃপক্ষ।
বক্তব্যে বেসিস সভাপতি আলমাস কবীর বলেন-দেশীয় সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠান গুলোর দক্ষতা এবং দেশের দক্ষ যুবসমাজের অর্জন ও সক্ষমতা তুলে ধরাই হলো এ সফটএক্সপোর মূল উদ্দেশ্য। এছাড়াও স্থানীয় ক্রেতাদের বিশ্বাস অর্জন করার উদ্দেশ্য মেলাকে সাজানো হয়েছে নতুন আঙ্গিকে যা আগে কখনও হয়নি।
মেলার আহবায়ক এবং বেসিসের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি ফারহানা এ রহমান বলেন- বাংলাদেশ সরকার দেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ তৈরী করার যে রূপকল্প হাতে নিয়েছে তারই অংশ হিসাবে আয়োজিত আমাদের এই এক্সপো। দেশ তথ্যপ্রযুক্তিতে অনেক এগিয়েছে, সারাদেশের মানুষের মধ্যে বিশেষ করে যুবসমাজের  মধ্যে তথ্য ও প্রযুক্তিতে আগ্রহীর সংখ্যা বেড়েছে বহুগুনে।  এবারে আমরা ঢাকার বাহিরের সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠান , ব্যক্তিগত পর্যায় এবং ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে আশাতীত সাড়া পেয়েছি। তাই এবার মেলার পরিসর আগের তুলনায় বাড়াতে হচ্ছে। ঢাকা এবং খুলনা হতে বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান মেলায় অংশগ্রহন করছে যা এবারের আয়োজনে ভিন্ন মাত্রা যোগ করবে বলে আমি মনে করি। তথ্য প্রযুক্তিতে নারীর অংশগ্রহণ বাড়াতে এবং প্রযুক্তিতে নারী উদ্যোক্তাদের বিরাজিত সমস্যা গুলো মোকাবেলায় কি করণীয় এই বিষয়গুলো মাথায় রেখে তাদের জন্য রয়েছে বিশেষ আয়োজন। দেশীয় সফটওয়্যার প্রদর্শনী, তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সক্ষমতা তুলে  ধরার পাশাপাশি নতুন সংযোজিত হয়েছে ইন্ডাস্ট্রি ৪.০ সেখানে আমরা দেশীয় সেবা প্রতিষ্ঠানের নতুন নতুন প্রযুক্তি পণ্য সেবা প্রদর্শণ করা হবে। এছাড়াও নতুনভাবে সংযোজিত হয়েছে ফিনটেক জোন ও এক্সপেরিয়েন্স জোন। ভ্যাট বর্তমান সময়ের সরকারের একটি  গুরুত্বপর্ণ বিবেচ্য বিষয় ৈএটা বিবেচনায় রেখে সংযোজিত করা হয়েছে ভ্যাট জোন।  শির্ক্ষাথীদরে জন্য প্রতিটি স্টলেই থাকবে সিভি জমা দেয়ার সুবিধা।   আমরা সবাইকে নিয়েই বড় পরিসরে সমগ্র আয়োজনটি করার চেষ্টা করছি যা করতে গনমাধ্যমের সহযোগিতা অগ্রগন্য।

সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ৩৪৭ বার