হুয়াওয়ের কর্মকর্তাকে জামিন দিয়েছেন কানাডার আদালত

প্রকাশঃ ১১:১৪ মিঃ, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮
Card image cap

হুয়াওয়ের কর্মকর্তাকে জামিন দিয়েছেন কানাডার আদালত

টেকওয়ার্ল্ড প্রতিনিধি:

গ্রেপ্তারের ১০ দিন পর চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের প্রধান অর্থ কর্মকর্তা মেং ওয়ানঝুকে জামিন দিয়েছেন কানাডার আদালত। গতকাল মঙ্গলবার তাঁকে জামিন দেওয়া হয়। যুক্তরাষ্ট্রের অনুরোধে ১ ডিসেম্বর ভাঙ্কুভার বিমানবন্দরে তাঁকে গ্রেপ্তার করে কানাডার কর্তৃপক্ষ।

 

গত শুক্রবার থেকে মেং ওয়ানঝুর জামিন শুনানি শুরু হয়। তাঁকে গ্রেপ্তারে ক্ষুব্ধ হয়ে কানাডাকে কড়া বার্তা দিয়েছিল চীন। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, মেংকে গ্রেপ্তার নিয়ে চীন ও কানাডার মধ্যে কূটনৈতিক দ্বন্দ্ব শুরু হয়।

 

যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে যখন একটি টানাপোড়েনের সম্পর্ক চলছে, ঠিক তখনই গ্রেপ্তার হন মেং ওয়ানঝু। তিনি হুয়াওয়ের প্রতিষ্ঠাতা রেন ঝেংফেই মেয়ে। তাঁর বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইরানে প্রযুক্তি বিক্রি করার অভিযোগ করা হয়। তিনি হংকং থেকে মেক্সিকো যাচ্ছিলেন। ভাঙ্কুভার বিমানবন্দরে তাঁর যাত্রাবিরতি ছিল।

 

এই গ্রেপ্তারকে মানবাধিকার লঙ্ঘন হিসেবে আখ্যায়িত করে মেং ওয়ানঝুর মুক্তি চায় বেইজিং। দোষী সাব্যস্ত হলে যুক্তরাষ্ট্রে ৩০ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে তাঁর।

 

আদালতে শুনানি শেষে বিচারক উইলিয়াম আকি ৭৫ লাখ মার্কিন ডলারে তাঁর শর্ত সাপেক্ষে জামিন মঞ্জুর করেন। জামিন দেওয়ার পর আদালত কক্ষে সবাই হাততালি দেন এবং মেং আনন্দে আইনজীবীকে জড়িয়ে ধরেন। আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি পরবর্তী শুনানি হবে।

 

জামিনের শর্ত অনুযায়ী, ৪৬ বছর বয়সী মেং ওয়ানঝুকে পায়ে একটি নজরদারি যন্ত্র (মনিটর) পরে থাকতে হবে এবং রাত ১১টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত তিনি বাইরে যেতে পারবেন না। এর বাইরে পাঁচ বন্ধুর কাছ থেকে অঙ্গীকারনামা নেওয়া হয়েছে।

 

কানাডার আদালত যদি মেং ওয়ানঝুর বিপক্ষে রায় দেন, তবে কানাডার আইনমন্ত্রী তাঁকে যুক্তরাষ্ট্রের হাতে প্রত্যর্পণ করবেন কি না, সে সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন। যুক্তরাষ্ট্র তখন একাধিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানে প্রতারণার ষড়যন্ত্রের অভিযোগে সর্বোচ্চ ৩০ বছর পর্যন্ত সাজা দিতে পারবে।

 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গতকাল মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে বা চীনের সঙ্গে বাণিজ্যচুক্তি বন্ধের কোনো বিষয় যদি থাকে, তবে মেংয়ের বিরুদ্ধে মার্কিন বিচার বিভাগের মামলায় তিনি হস্তক্ষেপ করবেন।

 

এর আগে হুয়াওয়ের ওই নির্বাহীকে দ্রুত ছেড়ে দিতে কানাডার প্রতি চীন আহ্বান জানিয়েছিল চীন। একই সঙ্গে বেইজিং হুঁশিয়ারি করে বলে, মেং ওয়ানঝুকে না ছাড়লে তার ভয়ানক পরিণতির সব দায় কানাডাকে ভোগ করতে হবে।

সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ৩৯০ বার