ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির এসিএম-আইসিপিসি ২০১৮ শুরু ১০ নভেম্বর

প্রকাশঃ ০৬:৫৯ মিঃ, নভেম্বর ৮, ২০১৮
Card image cap

ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির এসিএম-আইসিপিসি ২০১৮ শুরু ১০ নভেম্বর

টেকওয়ার্ল্ড প্রতিনিধি:

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির স্বাগতিকতায় এশিয়া অঞ্চলের (ঢাকা সাইট) আন্তর্জাতিক মর্যাদাপূর্ন প্রোগ্রামিং কনটেষ্ট এসিএম-আইসিপিসি (এসোসিয়েশন অব কম্পিউটিং মেশিনারিজ - ইন্টারন্যাশনাল কলেজিয়েট প্রোাগ্রামিং কনটেষ্ট) ২০১৮  এর ২২তম আসর আগামী  ১০ নভেম্বর শনিবার আশুলিয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসের স্বাধীনতা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশের ইতিহাসে এটাই এযাবৎ কালের সর্ববৃহৎ কম্পিউটার প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা। এতে বাংলাদেশের ১০১টি সরকারি - বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভিন্ন আইটি ইন্সটিটিউটের ২৯৭ টি দল (প্রতিটি দলে ৩ জন করে প্রতিযোগী) অংশগ্রহণ করবে। এছাড়া নেপাল থেকে তিনটি দল এবারের প্রতিযোগীতায় অংশ গ্রহণ করবে। এ প্রতিযোগিতার সেরা ২টি দল আগামী ৩১ মার্চ -৫ এপ্রিল ২০১৯ পর্তুগালের ইউনিভার্সিটি অব পোর্টো’র স্বাগতিকতায় অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড ফাইনালস ২০১৯ এর মূলপর্বে অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে। ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের আইসটি ডিভিশন ও বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের সহযোগিতায়  এবং স্যামসং ও এসএসএল ওয়ারলেস এর সহ-পৃষ্ঠপোষকতায় বাংলাদেশে পৃথিবীর বৃহত্তর পরিসরে এ মেগা ইভেন্টের আয়োজন করা হয়।   

 

 প্রধান অতিথি হিসাবে জমকালো এ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করবেন  বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যন অধ্যাপক আবদুল মান্নান এবং সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন দেশবরেণ্য তথ্যপ্রযুক্তিবিদ ও  জাতীয় অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরী। হাইটেক পার্ক কর্তপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ম্যাডাম হোসনে আরা বেগম, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলেরর নির্বাহী পরিচালক পার্থ প্রতিম দেব, স্যামসং  আর এন্ড ডি ইন্সটিটিউটের  প্রধান নির্বাহী পরিচালক ড্যানিয়েল ডাকিউন কিম, বাংলাদেশ কম্পিউটার সোসাইটির সভাপতি প্রফেসর হাফিজ মোঃ হাসান বাবু। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডঃ ইউসুফ এম ইসলাম এর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত রাখবেন কনটেষ্ট ডিরেক্টর অধ্যাপক ডঃ সৈয়দ আকতার হোসেন প্রমুখ।

 

সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত একটানা পাঁচ ঘন্টা এ প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা চলে। কম্পিউটার প্রোগ্রামিং কনটেষ্ট এর  পাশাপাশি এই জমকালো আয়োজনে থাকবে টেকনিক্যাল টকস, প্রজেক্ট শোকেসিং, ফান ইভেন্টস এবং পুরস্কার বিতরনী ও  মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

 

বিকাল ৪টায় সমাপনী ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরন করবেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি বিসয়ক মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আইসিটি ডিভিশনের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক, সচিব ম্যাডাম জুইয়েনা আজিজ ও  স্যামসং আরএন্ড ডি ইন্সটিটিউট বাংলাদেশের ব্যবসাথাপনা পরিচালক উনমো কু।

সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ২২ বার


মুখোমুখি

Card image cap
‘বাংলাদেশকেই হিটাচি পণ্যের বাজার হিসেবে অধিক সম্ভাবনাময় দেশ বলে মনে হয়’ - চেন টেক ব্যঙ্ক

হিটাচি হোম ইলেকট্রনিক্স এশিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব চেন টেক ব্যঙ্ক প্রকৃতঅর্থে একজন বয়োজষ্ঠ্য, কিন্তু তার জ্ঞানের পরিধি এবং অক্লান্ত পরিশ্রম তার বয়সকেও হার মানিয়ে দেয়। আর সে কারণেই তিনি হয়ে ওঠেন এক অদম্য যুবকের সমতুল্য। তার আধুনিক ব্যবসায়িক চিন্তাধারা এশিয় অঞ্চলে হিটাচি পণ্য ও সেবার  বাজারের ব্যাপক প্রসার ঘটাবে বলে আশা করা যাচ্ছে। বাংলাদেশে হিটাচি কোম্পানির ডিস্ট্রিবিউটর ইউনিক বিজনেস সিস্টেম লিমিটেড কর্তৃক আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে মাসিক টেকওয়ার্ল্ড পত্রিকার প্রতিনিধির জনাব চেন টেক ব্যঙ্ক এর সাক্ষাৎকার গ্রহণের সুযোগ হয়, যার উল্লেখযোগ্য অংশটুকু এখানে তুলে ধরা হলোঃ

প্রশ্নঃ সাধারণ