‘বাংলাদেশকেই হিটাচি পণ্যের বাজার হিসেবে অধিক সম্ভাবনাময় দেশ বলে মনে হয়’ - চেন টেক ব্যঙ্ক

প্রকাশঃ ০৫:৫৩ মিঃ, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৮
Card image cap

সিঙ্গাপুরিয়ান হিসেবে চেন টেক ব্যঙ্ক প্রথম ব্যক্তি যিনি হিটাচি কোম্পানি, এশিয়ার ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে নিযুক্ত হয়েছেন। বাংলাদেশে এটি তার দ্বিতীয় সফর। হিটাচি পণ্য ও সেবার ব্যবসায়িক প্রসারের উদ্দেশ্যেই তার এবারকার সফর।

বনি হামজা :

হিটাচি হোম ইলেকট্রনিক্স এশিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব চেন টেক ব্যঙ্ক প্রকৃতঅর্থে একজন বয়োজষ্ঠ্য, কিন্তু তার জ্ঞানের পরিধি এবং অক্লান্ত পরিশ্রম তার বয়সকেও হার মানিয়ে দেয়। আর সে কারণেই তিনি হয়ে ওঠেন এক অদম্য যুবকের সমতুল্য। তার আধুনিক ব্যবসায়িক চিন্তাধারা এশিয় অঞ্চলে হিটাচি পণ্য ও সেবার  বাজারের ব্যাপক প্রসার ঘটাবে বলে আশা করা যাচ্ছে। বাংলাদেশে হিটাচি কোম্পানির ডিস্ট্রিবিউটর ইউনিক বিজনেস সিস্টেম লিমিটেড কর্তৃক আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে মাসিক টেকওয়ার্ল্ড পত্রিকার প্রতিনিধির জনাব চেন টেক ব্যঙ্ক এর সাক্ষাৎকার গ্রহণের সুযোগ হয়, যার উল্লেখযোগ্য অংশটুকু এখানে তুলে ধরা হলোঃ

প্রশ্নঃ সাধারণত এ পর্যন্ত হিটাচি কোম্পানি জাপান থেকেই তাদের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক নিয়োগ দিয়ে আসছে। আপনিই সম্ভবত প্রথম সিঙ্গাপুরিয়ান যিনি হিটাচি কোম্পানির এশিয় অঞ্চলের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। এটাকে আপনি কি কোনো চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখছেন?

উত্তরঃ এক্ষেত্রে সর্বপ্রথমে আমি অধ্যাবসায়ের কথা বলব যেটা যে কোনো ক্ষেত্রে খুবই প্রয়োজন। পরবর্তীতে আমি বলব দক্ষ এবং কার্যকরী ব্যবসায়িক অংশীদারিত্বের কথা যেটা যে কোনো ধরনের ব্যবসা বিস্তারের অন্যতম সহায়ক। ব্যবসার প্রসারের ক্ষেত্রে অবশ্যই পার্টনারের সক্রিয় ভূমিকা অনস্বিকার্য, আর এক্ষেত্রে আমি আমার ব্যবসায়িক পার্টনার এবং সহকর্মীদের অবদানের জন্য কৃতজ্ঞ। পাশাপাশি, যে কোনো ধরনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার ক্ষেত্রে সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ এবং সঠিক সমাধান প্রদান অধিকতর জরুরী। 

প্রশ্নঃ যেহেতু আপনি বর্তমানে এশিয় অঞ্চলে হিটাচি পণ্যের বাজারের বিস্তারের দায়িত্বে নিয়োজিত আছেন, তাই এ ক্ষেত্রে এই অঞ্চলে কোন দেশটাকে হিটাচি পণ্যের বাজার হিসেবে অধিক সম্ভাবনাময় বলে আপনার কাছে মনে হয়?

উত্তরঃ বর্তমানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সেক্টরে বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি এবং সাধারণ মানুষের প্রবল আগ্রহ বিবেচনায় রেখে বাংলাদেশকেই হিটাচি পণ্যের বাজার হিসেবে এখনও পর্যন্ত অধিক সম্ভাবনাময় দেশ বলে মনে হয়।

প্রশ্নঃ এটি আপনার দ্বিতীয় বাংলাদেশ সফর। আপনার এবারের সফরের মূল উদ্দেশ্য কি?

উত্তরঃ মূলত, বাংলাদেশের বাজার বোঝার জন্যই আমাদের এবারকার এই সফর। পাশাপাশি, বাংলাদেশে আমরা আরো নতুন পার্টনারশিপের আশায় আছি যাতে করে আমরা আমাদের ব্যবসার আরো ব্যপ্তি ঘটাতে পারি।

প্রশ্নঃ গ্রাহকদের আকাঙ্খা বা চাহিদা পূরণে হিটাচি কোম্পনি পণ্য সরবরাহে সাধারণত কোন কোন জিনিসের উপর জোর দিয়ে থাকে?

উত্তরঃ ব্যবসা প্রসারের ক্ষেত্রে আমরা বাংলাদেশকে বরাবর অগ্রাধিকার দিয়ে আসছি। আমরা আজ এখানে এসেছি মূলত হিটাচির ব্যবসা সম্প্রসারণের উদ্দেশ্যে। আমরা এখানে প্রায় ২০ বছর ধরে ব্যবসা করে আসছি এবং আমাদের লক্ষ্যই হলো মার্কেট লিডার হিসেবে প্রতিষ্ঠিতি পাওয়া। স্বভাবত আমরা উন্নতমানের প্রোডাক্ট ডিজাইনের পাশাপাশি অত্যাধুনিক প্রযুক্তি, প্রোডাক্টের গুণাগুণ এবং আস্থার উপর জোর দিয়ে থাকি এবং সর্বোপরি সে সমস্ত পণ্য নিয়ে আমরা কাজ করি যা এখানকার পরিবেশ এবং মানষের চাহিদার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। 

প্রশ্নঃ হিটাচির পণ্য-সামগ্রী, বিশেষ করে গৃহস্থালি সরঞ্জামাদি আমাদের দৈনন্দিন জীবনে কিভাবে প্রভাব বিস্তার করবে? 

উত্তরঃ সাধারণত আমরা সে সমস্ত পণ্য নিয়ে কাজ করে থাকি যা কি না মানুষের দৈনন্দিন জীবনে উপকারে আসে। প্রোডাক্ট ডিজাইন, অত্যাধুনিক প্রযুক্তির প্রয়োগ, গুণাগুণ এবং নির্ভরশীলতার পাশাপাশি আমরা পণ্যের সৌন্দর্যের উপরও মনোযোগ দিয়ে থাকি। একজন গ্রাহক হিটাচির একটি পণ্য কিনে বাড়িতে নিয়ে আসবে, সেক্ষেত্রে পণ্যের সৌন্দর্যের বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। আরো একটি উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো বিদ্যুৎ সাশ্রয়। সাধারণত বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের বিষয়টি মাথায় রেখেই হিটাচির পণ্য-সামগ্রী উৎপাদিত হয়ে থাকে।  

প্রশ্নঃ বাংলাদেশের আইসিটি মার্কেটের জন্য আপনাদের কি কোনো বিশেষ ব্যবসায়িক পরিকল্পনা আছে?

উত্তরঃ আইসিটি আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি ক্ষেত্র। আমরা দীর্ঘদিন যাবৎ আইসিটি সেগমেন্ট নিয়ে কাজ করছি। আমরা ইতিমধ্যে বাংলাদেশ সরকারের সাথে প্রাথমিক শিক্ষাসহ বিভিন্ন প্রজেক্টে কাজ করছি। তাই বলা বাহুল্য যে আইসিটি আমাদের জন্য অতিব গুরুত্বপূর্ণ।

প্রশ্নঃ বর্তমানে বাংলাদেশে আপনাদের কতগুলো ডিস্ট্রিবিউটর রয়েছে?

উত্তরঃ এই মুহুর্তে বাংলাদেশে ইউনিক বিজনেস সিস্টেম সহ আমাদের সর্বমোট দুটো ডিস্ট্রিবিউটর রয়েছে। 

প্রশ্নঃ আইওটি বর্তমানে সমগ্র বিশ^ব্যাপি বিস্তার লাভ করছে, আর এক্ষেত্রে হিটাচি একটা ফ্যাক্টর। তাই, আইওটি সেক্টরে, বিশেষ করে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নিয়ে হিটাচির বিশেষ কোনো পরিকল্পনা আছে কি?

উত্তরঃ বর্তমানে আমরা বেশ কিছু আইওটি সলুশ্যান্স এর উপর কাজ করছি। স্বাস্থ্যসেবা, পরিবহন, এনার্জি, উৎপাদন শিল্পসহ বিভিন্ন পরিকল্পনা বাস্তবায়নে হিটাচির এন্ড-টু-এন্ড আইওটি সলুশ্যান্সে বেশ কিছু পরিবর্তন সাধন করা হয়েছে। পাশাপাশি ভবিষ্যতে আইওটি নিয়ে আমাদের আরো বিস্তর পরিকল্পনা আছে।

 

আমাদের সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

আপনাকেও।

সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ২৪৩ বার


মুখোমুখি

Card image cap
‘বাংলাদেশকেই হিটাচি পণ্যের বাজার হিসেবে অধিক সম্ভাবনাময় দেশ বলে মনে হয়’ - চেন টেক ব্যঙ্ক

হিটাচি হোম ইলেকট্রনিক্স এশিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব চেন টেক ব্যঙ্ক প্রকৃতঅর্থে একজন বয়োজষ্ঠ্য, কিন্তু তার জ্ঞানের পরিধি এবং অক্লান্ত পরিশ্রম তার বয়সকেও হার মানিয়ে দেয়। আর সে কারণেই তিনি হয়ে ওঠেন এক অদম্য যুবকের সমতুল্য। তার আধুনিক ব্যবসায়িক চিন্তাধারা এশিয় অঞ্চলে হিটাচি পণ্য ও সেবার  বাজারের ব্যাপক প্রসার ঘটাবে বলে আশা করা যাচ্ছে। বাংলাদেশে হিটাচি কোম্পানির ডিস্ট্রিবিউটর ইউনিক বিজনেস সিস্টেম লিমিটেড কর্তৃক আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে মাসিক টেকওয়ার্ল্ড পত্রিকার প্রতিনিধির জনাব চেন টেক ব্যঙ্ক এর সাক্ষাৎকার গ্রহণের সুযোগ হয়, যার উল্লেখযোগ্য অংশটুকু এখানে তুলে ধরা হলোঃ

প্রশ্নঃ সাধারণ