অনলাইনেই হবে ড্রাইভিং লাইসেন্স-গাড়ি রেজিস্ট্রেশন

প্রকাশঃ ১২:০৪ মিঃ, অক্টোবর ৯, ২০১৮
Card image cap


টেকওয়ার্ল্ড প্রতিনিধি:

আর নয় কোনো দালাল বা ভায়া মিডিয়া এবার নিজে নিজেই গাড়ি রেজিস্ট্রেশন বা ড্রাইভিং লাইসেন্স করা যাবে। শুধু মাত্র স্মার্ট ফোন অথবা কম্পিউটার থাকলেই চলবে। শিগগিরই বিআরটিসি সার্ভিস পোর্টাল নামে একটি পোর্টাল চালু করা হবে।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রকল্পের আওতায় বিশেষ এ সেবা কার্যক্রম অল্পদিনের মধ্যেই বাস্তবায়িত হতে যাচ্ছে। এ সার্ভিস পোর্টাল চালু হলে আর গাড়ি রেজিস্ট্রেশন বা ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য বিআরটিএ অফিসে দৌড়াতে হবে না।

এ পোর্টালে সমস্ত সেবামূলক অপশন দেওয়া থাকবে। তাতে গ্রাহক যে সেবা গ্রহণ করতে চান শুধু সেখানে গিয়ে ক্লিক করলেই কাঙ্খিত সেবার পাতা চলে আসবে। নির্ধারিত শর্ত ও ছক পূরণ করে সাবমিট করলেই কনফারমেশন আসবে। এরপর জানিয়ে দেওয়া হবে কবে আপনার পরীক্ষার তারিখ, কবে পাচ্ছেন ড্রাইভিং লাইসেন্স বা গাড়ির স্মার্ট কার্ড।

পোর্টালটির সমস্ত কারিগরি কাজ সম্পন্ন হয়েছে এখন সরকারের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায়। এ সেবা চালু হলে ড্রাইভিং লাইসেন্স আর গাড়ির কার্ড পাওয়ার হয়রানি বন্ধ হবে। বন্ধ হবে দালালের দৌরাত্ম। তাছাড়া টাকা জমা দেওয়ার জন্যও গ্রাহককে ব্যাংক বা বিআরটিএতে লাইন ধরতে হবে না। রকেট এর মাধ্যমে আই পেমেন্ট সেবা চালু আছে।

বিআরটিএ’র সহকারী পরিচালক (ইঞ্জিনিয়ারিং) ফারুক আহমেদ বলেন, বিআরটিএ’র সেবা আরও সহজ করতে আমরা বিআরটিএ সার্ভিস পোর্টল (বিএসপি) চালু করতে যাচ্ছি। যেখানে একজন এক ছাতার নিচে বসেই সমস্ত সেবা পাবে। এতে হয়রানি যেমন কমবে, তেমনি দালালের দৌরাত্মও কমবে। আমাদের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। আগামী ৬ মাসের মধ্যেই এ সেবা চালু হয়ে যাবে।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগর বাণিজ্য মেলার মাঠে তিনদিন ব্যাপী উন্নয়ন মেলায় বিআরটিএ’র পক্ষ থেকে বিভিন্ন সেবামূলক সার্ভিস দেওয়া হচ্ছে। এখানে ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য টাকা জমাসহ সব কাজ সম্পন্ন করে শিক্ষানবিশ কার্ড দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া গাড়ির রেজিস্ট্রেশনেরও কাজ করা হচ্ছে।

সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ১০ বার


মুখোমুখি

Card image cap
‘বাংলাদেশকেই হিটাচি পণ্যের বাজার হিসেবে অধিক সম্ভাবনাময় দেশ বলে মনে হয়’ - চেন টেক ব্যঙ্ক

হিটাচি হোম ইলেকট্রনিক্স এশিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব চেন টেক ব্যঙ্ক প্রকৃতঅর্থে একজন বয়োজষ্ঠ্য, কিন্তু তার জ্ঞানের পরিধি এবং অক্লান্ত পরিশ্রম তার বয়সকেও হার মানিয়ে দেয়। আর সে কারণেই তিনি হয়ে ওঠেন এক অদম্য যুবকের সমতুল্য। তার আধুনিক ব্যবসায়িক চিন্তাধারা এশিয় অঞ্চলে হিটাচি পণ্য ও সেবার  বাজারের ব্যাপক প্রসার ঘটাবে বলে আশা করা যাচ্ছে। বাংলাদেশে হিটাচি কোম্পানির ডিস্ট্রিবিউটর ইউনিক বিজনেস সিস্টেম লিমিটেড কর্তৃক আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে মাসিক টেকওয়ার্ল্ড পত্রিকার প্রতিনিধির জনাব চেন টেক ব্যঙ্ক এর সাক্ষাৎকার গ্রহণের সুযোগ হয়, যার উল্লেখযোগ্য অংশটুকু এখানে তুলে ধরা হলোঃ

প্রশ্নঃ সাধারণ