শীঘ্রই গঠন করা হবে স্মল ক্যাপিটাল বোর্ড

প্রকাশঃ ১২:১৫ মিঃ, আগস্ট ১৪, ২০১৮
Card image cap


টেকওয়ার্ল্ড প্রতিনিধি:

ভেঞ্চার ক্যাপিটাল অ্যান্ড প্রাইভেট ইকুইটি অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ভিসিপিয়াব) এর প্রতিনিধিদল বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) এর চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেনের সাথে সৌজন্য সাক্ষাত করেছেন। ১৩ আগস্ট, সোমবার রাজধানীর বিএসইসি কার্যালয়ে এই সৌজন্য সাক্ষাতে প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন ভিসিপিয়াব চেয়ারম্যান ও ফেনক্স ভেঞ্চার ক্যাপিটালের জেনারেল পার্টনার শামীম আহসান।

বৈঠকে আইপিওর মাধ্যমে স্মল ক্যাপিটাল কোম্পানির ফান্ড বৃদ্ধির প্রক্রিয়াকে সহযোগিতা করতে আগামী এক থেকে দুই মাসের মধ্যে স্মল ক্যাপিটাল বোর্ড গঠনের বিষয়ে আলোচনা হয়। স্মল ক্যাপিটাল বোর্ডের সুপারিশ সাপেক্ষে একটি কোম্পানি বিদ্যমান সর্বনিম্ন পেইড-আপ ক্যাপিটাল ৫ কোটি টাকা থাকলেই আইপিওর জন্য আবেদন করতে পারবে। কোম্পানিটি কোয়ালিফায়েড ইনভেস্টর অফার (কিউআইও) এর মাধ্যমে কমপক্ষে ৫ কোটি টাকা পেইড-আপ ক্যাপিটাল থেকে সর্বোচ্চ ৩০ কোটি টাকা পর্যন্ত ফান্ড তৈরি করতে পারবে। পূর্বে, একটি কোম্পানিকে আইপিওর জন্য আবেদন করতে হলে বিভিন্ন শর্তের পাশাপাশি ৩০ কোটি টাকা পেইড-আপ ক্যাপিটাল এবং বিগত ৩ বছর ধরে কোম্পানির লাভজনক অবস্থায় থাকা বাধ্যতামূলক ছিলো।

বিএসইসি চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেন বলেন, স্মল ক্যাপিটাল কোম্পানির জন্য কোয়ালিফায়েড ইনভেস্টর অফারের নীতিমালা বাস্তবায়নের পথে আমরা অনেক দূর এগিয়েছি। আমাদের দিক থেকে আমরা গেজেট প্রকাশ করেছি এবং বোর্ড গঠনের প্রক্রিয়া চলছে। এটি বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ তৈরির মাধ্যমে বাংলাদেশের ক্যাপিটাল মার্কেটকে বৃদ্ধি করবে।

ভিসিপিয়াব চেয়ারম্যান শামীম আহসান বলেন, তরুণ উদ্যোক্তা ও স্টার্টআপের জন্য ব্যাংক ঋণ সুবিধা না থাকায় তাদের জন্য অ্যাক্সেস টু ফিন্যান্স সবচেয়ে বড় প্রতিবন্ধকতা। যেহেতু আইটি কোম্পানিগুলোর পেইড-আপ ক্যাপিটাল কম এবং লাভের চেয়ে কোম্পানির অগ্রগতির দিকে বেশি নজর থাকে, তাই এসব কোম্পানির জন্য আইপিওতে যাওয়া কঠিন। স্মল ক্যাপিটাল বোর্ড গঠনের মাধ্যমে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল প্রতিষ্ঠান ও বিনিয়োগকারী ব্যাংকগুলোর টেকসই নির্গমন কৌশল থাকছে, যা তথ্যপ্রযুক্তি খাতকে আরও লাভজনক করে তুলবে। আমরা আশাবাদী যে, তাদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধি আমাদের ক্রমবর্ধমান তথ্যপ্রযুক্তি উদ্যোক্তা ও স্টার্টআপের অগ্রগতিকে ত্বরান্বিত করবে।

এসময় বিএসইসির কমিশনার ড. স্বপন কুমার বালা, এফসিএমএ, নির্বাহী পরিচালক হাসান মাহমুদ, পরিচালক মো. মাহমুদুল হক, উপ-পরিচালক মো. এমদাদুল হক উপস্থিত ছিলেন। ভিসিপিয়াব প্রতিনিধিদলের অন্যান্য সদস্যরা হলেন সংগঠনটির সহ-সভাপতি ও ভিআইপিবি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান জিয়া ইউ আহমেদ, ভিসিপিয়াব মহাসচিব ও বিডি ভেঞ্চার লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শওকত হোসেন, মসলিন ক্যাপিটাল লিমিটেডের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ওয়ালিউল মারুফ মতিন এবং আবিস্কার ফ্রন্টিয়ার ফান্ড (বাংলাদেশ) এর বিনিয়োগ ব্যবস্থাপক নাজমুল করিম।

সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ৪১ বার


মুখোমুখি

Card image cap
‘বাংলাদেশকেই হিটাচি পণ্যের বাজার হিসেবে অধিক সম্ভাবনাময় দেশ বলে মনে হয়’ - চেন টেক ব্যঙ্ক

হিটাচি হোম ইলেকট্রনিক্স এশিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব চেন টেক ব্যঙ্ক প্রকৃতঅর্থে একজন বয়োজষ্ঠ্য, কিন্তু তার জ্ঞানের পরিধি এবং অক্লান্ত পরিশ্রম তার বয়সকেও হার মানিয়ে দেয়। আর সে কারণেই তিনি হয়ে ওঠেন এক অদম্য যুবকের সমতুল্য। তার আধুনিক ব্যবসায়িক চিন্তাধারা এশিয় অঞ্চলে হিটাচি পণ্য ও সেবার  বাজারের ব্যাপক প্রসার ঘটাবে বলে আশা করা যাচ্ছে। বাংলাদেশে হিটাচি কোম্পানির ডিস্ট্রিবিউটর ইউনিক বিজনেস সিস্টেম লিমিটেড কর্তৃক আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে মাসিক টেকওয়ার্ল্ড পত্রিকার প্রতিনিধির জনাব চেন টেক ব্যঙ্ক এর সাক্ষাৎকার গ্রহণের সুযোগ হয়, যার উল্লেখযোগ্য অংশটুকু এখানে তুলে ধরা হলোঃ

প্রশ্নঃ সাধারণ